1. admin@voicebanglanews.com : voicebangla :
মেসিকে ছুঁলেন নেইমার - ভয়েস বাংলা নিউজ
শুক্রবার, ২১ জানুয়ারী ২০২২, ০৮:০১ পূর্বাহ্ন
বিজ্ঞপ্তিঃ
প্রতিমুহূর্তের খবরাখবর জানতে আমাদের সাথে থাকুন।আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচার করতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।মেইল - voicebanglanews@gmail.com

মেসিকে ছুঁলেন নেইমার

  • প্রকাশিতঃ বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২০
  • ২১২ জন পঠিত

ডেস্ক
মেসিকে ছুঁলেন নেইমার
আপাতদৃষ্টিতে আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসির ধারেকাছেও নেই ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। নেইমারকে প্রতিভাবান ফুটবলার বলা যেতে পারে, তবে মেসির সঙ্গে তুলনা করা বাতুলতা, এমনটাই বলেন বিশ্লেষকরা। তবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে আটালান্টার বিপক্ষে ম্যাচের পর প্রশংসায় ভাসছেন নেইমার। অনেকেই বলছেন, মেসির মতোই নাকি খেলেছেন তার সাবেক সতীর্থ!

অবশ্য এই তুলনা টানার একটা কারণও আছে। গতকালকের ম্যাচে মেসির একটা রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন নেইমার। ২০০৮ সালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের বিপক্ষে ম্যাচে ১৬বার ড্রিবলিং করেছিলেন মেসি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এক ম্যাচে একজন ফুটবলারের ড্রিবলিংয়ের এটাই ছিল রেকর্ড। আটালান্টার বিপক্ষে ম্যাচে নেইমারও করেছেন ঠিক ১৬টি ড্রিবলিং।
কেবল এই হিসেবেই নয়, দলকে বাঁচাতে শেষমুহূর্ত পর্যন্ত লড়ে যাওয়ার নজির আছে মেসির। কিংবা বিগ ম্যাচে প্রায়ই দলের উদ্ধারকারী হয়ে ওঠেন বার্সা সুপারস্টার। আটালান্টার বিপক্ষেও নেইমার হয়ে উঠেছিলেন উদ্ধারকর্তা। যদিও ম্যাচে বেশকিছু সহজ গোলের সুযোগ নষ্ট করেছেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। তবে শেষমেশ দলকে বাঁচিয়েছেনও তিনি। পুরো ম্যাচে পিছিয়ে থাকা দলকে অতিরিক্ত সময়ে লিড পাইয়ে দেন নেইমারই। এবং শেষ গোলটাতেও রাখেন বড় অবদান। আর ড্রিবলিংয়ের হিসেবটায় পরিষ্কার, মাঠে নিজেকে কতোটা উজাড় করে দিয়েছিলেন নেইমার। সবমিলিয়ে এই এক ম্যাচের মাধ্যমে পুরনো সতীর্থের সঙ্গে আবারো মিল খুঁজছেন ইউরোপিয়ান ফুটবল বোদ্ধারা।

Print Friendly, PDF & Email

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরো সংবাদ

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস

সর্বমোট

আক্রান্ত
১,৬৫৩,১৮২
সুস্থ
১,৫৫৪,৮৪৫
মৃত্যু
২৮,১৮০
সূত্র: আইইডিসিআর

সর্বশেষ

আক্রান্ত
১০,৮৮৮
সুস্থ
৫৭৭
মৃত্যু
স্পন্সর: একতা হোস্ট

বিশ্বে করোনা ভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১,৬৫৩,১৮২
সুস্থ
১,৫৫৪,৮৪৫
মৃত্যু
২৮,১৮০
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩৩৮,৪৩৯,৫৬২
সুস্থ
মৃত্যু
৫,৫৬১,২৭৩